তরুণীর পেটে স্বর্ণের হার-হাতের বালা

প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০১৯

তরুণীর পেটে স্বর্ণের হার-হাতের বালা

সানডে সিলেট ডেস্ক : শুক্রবার, ১৬ আগস্ট ২০১৯ : কয়েক দিন ধরে পেটের আকার অস্বাভাবিকভাবে বড় হয়ে যাচ্ছিল ২২ বছর বয়সী রুনি খাতুনের। সেই সঙ্গে ছিল প্রচণ্ড পেট ব্যথা। এ অবস্থায় পরিবারের সদস্যরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসকরা আলট্রাসনোগ্রাফি করে আতকে ওঠেন। কারণ আলট্রাসনোগ্রাফি করে রুনির পাকস্থলীতে অসংখ্য ধাতব পদার্থ দেখতে পান তারা। এর পরপরই চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন।

বুধবার রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাস অস্ত্রোপচারের জন্য রুনির পাকস্থলিতে অস্ত্রোপচার করে আরও অবাক হয়ে যান। একে একে রুনির পেট থেকে বেরিয়ে আসে স্বর্ণের হার, কানের দুল, হাতের বালা থেকে শুরু করে কয়েন।

টানা এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট ধরে অস্ত্রোপচারের পর হিসাব করে দেখা যায়, রুনির পেটে ৬০টি কয়েন, একটি স্বর্ণের হার, গোটা কয়েক কানের দুল ও বালা জমা হয়েছিল। সবমিলিয়ে প্রায় ২ কিলোগ্রাম ধাতব পদার্থ।

ডা. সিদ্ধার্থ বিশ্বাস বলেন, বিপুল পরিমাণ ধাতব পদার্থ জমা থাকার কারণেই রুনির পাকস্থলি স্বাভাবিকভাবে কাজ করছিল না। ফলে বমি ও পেট ব্যথা করছিল। রুনির পরিবারের সঙ্গে কথা বলে চিকিৎসকরা জানতে পারেন, তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন। গত কয়েক বছর ধরে যেকোনো জিনিস খেয়ে ফেলার অভ্যাস তৈরি হয়েছিল তার।

হাতে পেলেই সবকিছু খেয়ে ফেলতেন। এভাবেই একে একে এতো ধাতব জিনিস জমা হয় রুনির পেটে। বাড়ির সঙ্গেই তাদের একটি দোকান আছে। সেখান থেকেই তিনি বিভিন্ন কয়েন মুখে দিয়েছেন বলে পরিবারের সদস্যদের ধারণা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রুনির অবস্থা স্থিতিশীল। মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে চিকিৎসা করানোর জন্য তার পরিবারের সদস্যদের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি