স্পেশাল

৭ উইকেটে জিতল অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত: ৫:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭

৭ উইকেটে জিতল অস্ট্রেলিয়া

সানডে সিলেট ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ার লিডটা ৭২-এ আটকে রেখে যে মনস্তাত্ত্বিক সান্ত্বনা বাংলাদেশ কুড়িয়েছিল, তা মুহূর্তেই হাওয়া তামিম-সৌম্যদের ব্যাটিংয়ে। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যস্ত বাংলাদেশ। সেই ধাক্কা আর সামলেই উঠতে পারেনি দল। ১৫৭ রানে অলআউট হয়েছে দ্বিতীয় ইনিংসে। অস্ট্রেলিয়াকে দিতে পেরেছে মাত্র ৮৬ রানের লক্ষ্য। ৪৮ রানে ৩ উইকেট ফেলে দিয়ে সাময়িক একটা উত্তেজনা তৈরি করেছিল বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ম্যাক্সওয়েলের ১৭ বলে ২৫ রানের ঝাপটায় অঘটনের ক্ষীণতম সম্ভাবনাও শেষ হয়ে গেল। ৭ উইকেটে জিতে সিরিজটাও ১-১ করে ফেলল অস্ট্রেলিয়া।

এই পুঁজি নিয়ে লড়াই হয় না। তবু মোস্তাফিজ নিজের তৃতীয় আর ইনিংসের পঞ্চম ওভারে ওয়ার্নারকে ফিরিয়েছেন। তাইজুল স্মিথকে আর সাকিব রেনশকে ফেরানোর পর গ্যালারিতে কিছুটা উত্তেজনার রেশ দেখা গেছে। শেষ পর্যন্ত ১৩ উইকেট নেওয়া নাথান লায়নেরই জয় হলো। তাঁর বোলিংয়েই তো দ্বিতীয় ইনিংসে তাদের ঘর হয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ।দলীয় ১১ রানের মাথায় অফ স্টাম্পের ওপর বলে খোঁচা দিয়ে ফেরেন সৌম্য সরকার। প্যাট কামিন্সের বলে স্লিপে সৌম্যর ক্যাচ নেন ম্যাট রেনশ।

৯ রানে সৌম্য ফেরার পর ইমরুল আর তামিম কখনোই আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে পারেনি। ৩২ রানের সময় নাথান লায়নের বলে অযথা বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়েন তামিম। ইমরুল ৩৯ রানের মাথায় সেই লায়নের বলেই গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে ক্যাচ দেন।৯৭ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে দিশেহারা বাংলাদেশকে কিছুটা আলো দেখিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুুল হক। ৩২ রানের জুটি গড়েছিলেন এ দুই ব্যাটসম্যান। কিন্তু প্যাট কামিন্সের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন অধিনায়ক মুশফিক (৩১) । এরপর মুমিনুলও এই টেস্টে লায়নের ১২তম শিকারে পরিণত হন কামিন্সকে ক্যাচ দিয়ে। চা বিরতির পর লায়ন তাইজুলকেও ফিরিয়েছেন। বাকি চারটি উইকেট সমান ভাগাভাগি করেছেন কামিন্স ও ও’কিফ।

বাংলাদেশের পক্ষে কারও ফিফটি দূরের কথা, ৪০ রানের ইনিংসই নেই। ত্রিশের ঘরই পেরোতে পেরেছেন একজন—মুশফিক। এগিয়ে থেকেও সিরিজের ট্রফিটা একার করে নিতে না-পারার হতাশাই সঙ্গী হলো বাংলাদেশের।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ