সিলেট-৩ আসনকে নান্দনিক করতে সবাইকে নিয়ে কাজ করবঃ হাবিবুর রহমান

প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২১

সিলেট-৩ আসনকে নান্দনিক করতে সবাইকে নিয়ে কাজ করবঃ হাবিবুর রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃঃ সিলেট-৩ (দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ) আসনকে একটি নান্দনিক আসন করতে চান আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব। উপনির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি সেই প্রচেষ্টাই করবেন। এজন্য সবাইকে নিয়ে কাজ করবেন।

 

তিনি বলেন, দল থেকে যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন, তাদের সবাই গ্রহণীয় ও বরণীয় ব্যাক্তি। সকল কার্যক্রমে তাদের পরামর্শ, আন্তরিকতা ও সহযোগিতা নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।

 

বুধবার (১৬ জুন) বেলা আড়াইটায় সিলেট নগরের মির্জাজাঙ্গালস্থ একটি হোটেলের সম্মেলনকক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, প্রয়াত সাংসদ মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর অসমাপ্ত কাজ করতে চাই। তার পরিবারও আমাকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে। একই সাথে দলের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, বিএম এর মহাসচিব ডা. এহতেশামুল হক দুলালসহ যারা সিলেট-৩ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন, তাদের সবাই আমার সাথে রয়েছেন, সাহস যুগিয়েছেন।

 

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে বিবেধ নেই উল্লেখ করে হাবিব বলেন, উন্নয়নের স্বার্থে দলের টানে সবাই আজ এক মোহনায় মিলিত হয়েছেন। সুতরাং সিলেট-৩ আসনে নৌকার বিজয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবতে চায় না আওয়ামী লীগ।

 

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খানের পরিচালনায় মতবিনিময়কালে হাবিবুর রহমান জানান, গত ১১ মার্চ ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন ওই আসনের এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস। তার আসনে উপ নির্বাচনে দলের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে মনোনয়ন দিয়ে কৃতজ্ঞতায় আবদ্ধ করেছেন। এখন লক্ষ্য এলাকার জন্য কিছু করা। অতীতে দলীয় মনোনয়ন না পেলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে তিনি কাজ করেছেন। এ আসনের মাটি ও মানুষের সাথে জন্মঋন রয়েছে তার। সম্পর্ক ও ভালোবাসার তাগিদে প্রচেষ্টা চালাতে চান হাবিব।

 

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এই আসনে উপজেলা রয়েছে মোট তিনটি। নির্বাচিত হলে সুষম বণ্ঠনের ভিত্তিতে উন্নয়ন সাধন করা হবে। উন্নয়ন নীতিতে প্রতিটি উপজেলা হবে অভিন্ন। এই বিশ্বাস মনে প্রাণে ধারণ করেই চলবে আগামীর সকল কার্যক্রম।

 

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির উদ্দিন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রঞ্জিত সরকার, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজমল আলী, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক হাজি ফারুক আহমদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাজি রইছ আলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট ছালেহ আহমদ হীরা, কোষাধ্যক্ষ শমসের জামাল, উপ-প্রচার সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, সদস্য অ্যাডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, শহিদুর রহমান শাহিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য ও সিলেট চেম্বারের সহসভাপতি তাহমিন আহমদ, বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাকুর রহমান মফুর, সাধারণ সম্পাদক আনহার মিয়া, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামীম আহমদ, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত টুটুল প্রমুখ।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ