সিলেটে চা শ্রমিক দিবস উদযাপন সম্পন্ন

প্রকাশিত: ৩:১৫ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২০

সিলেটে চা শ্রমিক দিবস উদযাপন সম্পন্ন

সানডে সিলেট: বুধবার, ২০ মে ২০২০ : চা বাগান শিক্ষা অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে মহান চা শ্রমিক দিবসের ৯৯তম বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। বুধবার সকালে লাক্কাতুরা, মালনীছড়া, লালাখাল, বড়জান, ছড়াগাং, গুলনি, খানবাগান, হাবিবনগর, মনিপুর, লস্করপুর, লালচান, বরমচালসহ বিভিন্ন বাগানের ছাত্র-যুবকরা শহীদদের প্রতিশ্রদ্ধা নিবেদন করে। এসময় উপস্থিত ছিলেন- চা বাগান শিক্ষা অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের সংগঠক, সঞ্জয় কান্ত দাস, জতিন সিং, সজল গোয়ালা, নেপাল ছত্রী, রনি ঘোষ, উজ্জ্বল বুনার্জী, শিপু বাউরী, রনি যাদব, রামজিৎ, প্রমা, প্রসেনজিৎ ছত্রী, শোভন রায় দিপ্ত, যীশু আচার্য্য, রাজেন গোয়াল, বাবু কর্মকার, রথীন্দ্র কর্মকার, স্বদেশ রায়, লছমন ভর, সালাউদ্দিন প্রমুখ।

 

নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০শে মে ঐতিহাসিক মুল্লুকে চল আন্দোলন শুধুমাত্র চা শ্রমিকদের সংগ্রামী একটি দিন নয়, বরং বৃট্রিশ বিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম দিন। পাঞ্জাবের জালিওলাবাগের হত্যাকান্ডের চেয়েও ভয়ংকর ছিল চাঁদপুরের মেঘনা ঘাটে সংগঠিত এ চা শ্রমিক হত্যাকান্ডটি। চা শ্রমিকদের এই আত্মত্যাগ তৎকালীন ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে গভীর প্রভাব তৈরি করে। কিন্তু আজ তা প্রায় অজানা। তাই দিবসটির রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি ও পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্তি খুবই যৌক্তিক। মেঘনা ঘাটে সংগঠিত এ চা শ্রমিক হত্যাকান্ডটি। চা শ্রমিকদের এই আত্মত্যাগ তৎকালীন ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে গভীর প্রভাব তৈরি করে। কিন্তু আজ তা প্রায় অজানা। তাই দিবসটির রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি ও পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্তি খুবই যৌক্তিক।

 

যে শপত নিয়ে সেদিন চা শ্রমিকরা জীবন দিয়েছিলেন, আজ স্বাধীন বাংলাদেশে তা বাস্তবায়ন হয়নি। ১৬৬টি চা বাগানের মধ্যে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে মাত্র ১৪টি, ভূমির উপর নেই কোন অধিকার, একটা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্টি হিসাবে শিক্ষা ও চাকুরির ক্ষেত্রে কোটার বিধান থাকলেও তা বাগানের ক্ষেত্রে কার্যকর নয়। অর্থিক অনটনের কারনে পড়ালেখা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন চা সন্তানরা।তাই ২০শে মে চা শ্রমিক দিবসের চেতনাকে ধারন করে শিক্ষার অধিকারসহ সার্বিক মুক্তির লড়াই এগিয়ে নিতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি