সাবেক স্ত্রীকে জড়িয়ে ‘মিথ্যা সংবাদ’: থানায় গেলেন অপূর্ব

প্রকাশিত: ২:০৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

সাবেক স্ত্রীকে জড়িয়ে ‘মিথ্যা সংবাদ’: থানায় গেলেন অপূর্ব

সানডে সিলেট ডেস্ক
দুয়েক আগে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব বলেছিলেন, সাবেক স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির নামে প্রচার হওয়া সংবাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবেন। এবার তিনি থানায় গেলেন।

সম্প্রতি আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক সাহেদ করিমের সঙ্গে জড়িয়ে নাজিয়াকে নিয়ে কিছু খবর প্রকাশ হয়। এ নিয়ে অপুর্ব বলছেন, সাবেক স্ত্রীর প্রতি কখনোই এ ধরনের অভিযোগ ছিল না। অথচ এখন তার বিরুদ্ধে কিছু অনলাইন বাজে খবর ছড়াচ্ছে।

শনিবার বিকেলে উত্তরা পূর্ব থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন অপূর্ব। এ বিষয়ে তিনি ফেইসবুক বলেন, “ইতিমধ্যে প্রায় সবাই জেনে গেছেন সেই ব্যাপারে আমি ঐ সকল অনলাইন পত্রিকা এবং ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করার ঘোষণা দেই। সেই প্রেক্ষিতে অদ্য (শনিবার) দুপুরে আমি পুলিশের সাইবার ক্রাইম শাখায় উপস্থিত হয়ে এই নিউজের বিপরীতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করি।”

আরও বলেন, “আমি আইনের প্রতি অত্যন্ত শ্রদ্ধাশীল একজন ব্যক্তি। অতএব অনলাইনে মিথ্যা, অপ্রাসঙ্গিক ও অনভিপ্রেত সংবাদ প্রকাশের জন্য আমি সাইবার আইনের মাধ্যমেই ব্যবস্থা নিচ্ছি। সিটিটিসি-সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগের পরামর্শক্রমে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আওতায় উত্তরা পূর্ব থানায় আমি অভিযোগ দায়ের করলাম। আমি বিশ্বাস করি আমি ন্যায়বিচার পাবো। সেই সাথে এই ঘটনার সাথে যে বা যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার জন্যেও আমি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং সংবাদমাধ্যমের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।”

এর আগে অপূর্ব বলেছিলেন, “অদিতি আমার স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা। সুতরাং আয়াশের মায়ের বিরুদ্ধে কোন ধরনের কোনো ষড়যন্ত্র বা নোংরামিকে আমি মেনে নিব না। গোয়েন্দা সংস্থার নাম ভাঙিয়ে অদিতি এবং আমাকে জড়িয়ে এই ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার চালানো অনলাইন পত্রিকাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়ার জন্য আমি আইন প্রয়োগকারী সংস্থাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। সেই সাথে আবারেও বলছি এই ধরনের কুরুচিপুর্ণ মিথ্যা কল্পকাহিনী ছড়ানোর দায়ে আমি ঐ সকল অনলাইন পত্রিকার বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।”

অপূর্ব বলেন, “আমি আরও স্পষ্ট ভাষায় জানাতে চাই, যে বা যারা এই নোংরা খেলার সাথে জড়িত তাদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করে আমি আইনের আওতায় আনব। আমি আশা করব মূলধারার গণমাধ্যমগুলো আমাকে এই ব্যাপারে সত্য প্রকাশ করে সহায়তা করবেন। কারণ দীর্ঘ সময় মিডিয়াতে কাজ করার সুবাধে তাদের কাছে আমার এই দাবি থাকতেই পারে।”

এ দিকে লকডাউনে দীর্ঘদিন গৃহবন্দী থাকার পর চলতি মাসেই শুটিং ফ্লোরে ফেরেন। ইউনিটের সবাইকে করোনা পরীক্ষা করিয়ে কাজ শুরু করলেও পরদিন দুজন অসুস্থ হয়ে পড়েন। নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা ধরা পড়ে। এর পর দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইন মেনে কাজে ফেরেন অপূর্ব ও তার সহকর্মীরা।

২০১১ সালের ১৪ জুলাই নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। ২০১৪ সালের জুন মাসে বাবা-মা হন তাঁরা। চলতি বছর বিচ্ছেদ হয় তাদের। এর আগে সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব।

সূত্র- দেশ রুপান্তর।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি