স্পেশাল

সমাজসেবায় শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পেলেন বালাগন্জের ভাইস-চেয়ারম্যান সামস উদ্দিন

প্রকাশিত: ১:৫৮ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

সমাজসেবায় শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পেলেন বালাগন্জের ভাইস-চেয়ারম্যান সামস উদ্দিন

বালাগঞ্জ প্রতিনিধিঃ করোনা মহামারিতে জনসচেতনতা ও সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ “শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০২০” এ ভূষিত হয়েছেন বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান, সিলেট জেলা যুবলীগ নেতা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল দৈনিক সানডে সিলেট.কম এর সম্পাদক ও প্রকাশক সামস্ উদ্দিন সামস্।

গত শনিবার (২১ নভেম্বর) বিকেল ৪টায় রাজধানীর ইকোনমিক রিপোটার্স ফোরাম মিলনায়তনে আলোকিত মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে “উপমহাদেশের শিক্ষা বিস্তারে শেরে বাংলার ভূমিকা” শীর্ষক আলোচনা সভা ও “শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০২০” প্রদান উপলক্ষে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তার হাতে পদক তুলে দেয়া হয়।

 

“শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০২০” প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি মো. খাদেমুল ইসলাম চৌধুরী।

আলোকিত মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আতাউল্লাহ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান, সাবেক তথ্য সচিব ও শেরে বাংলা’র দৌহিত্র মার্গুব মোর্শেদ।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনের সাবেক সচিব ড. মো. জাকারিয়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন, বাংলাদেশ পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার কবি নুরুল ইসলাম বিপিএম।

 

উল্লেখ্য, এর আগে গত বছর সামস্ উদ্দিন সামস্ সিলেট বিভাগে সাংগঠনিক দক্ষতা ও সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য সাউথ এশিয়া সোশ্যাল কালচারাল ফোরাম কর্তৃক “মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০১৯” এ ভূষিত হন।

এদিকে, সামস্ উদ্দিন সামস্ “শেরে বাংলা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০২০” তার নির্বাচনী এলাকা বালাগঞ্জ উপজেলাবাসীকে উৎসর্গ করেছেন।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আমি আমার নির্বাচনী এলাকা বালাগঞ্জ উপজেলার সর্বস্থরের জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞ, কারণ তারা ভোট দিয়ে নির্বাচিত না করলে আমি কখনো ভাইস চেয়ারম্যান পদে আসীন হতে পারতাম না। আমি সব সময় চেষ্ঠা করি সাধ্যমতো মানুষের পাশে দাড়ানোর।

এ পদকের ভাগীদার বালাগঞ্জের সর্বস্থরের জনগণ। আমি এ পদকটি বালাগঞ্জ উপজেলার সর্বস্থরের জনসাধারণকে উৎসর্গ করলাম।

চলার পথে বালাগঞ্জ উপজেলার মানুষের ভালোবাসাই আমার সকল কাজে প্রেরণা যোগায়।

আমি বালাগঞ্জ উপজেলার সর্বস্থরের জনসাধারণের দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করি, যাতে অতীতের ন্যায় আগামীতেও আপনাদের সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে পারি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ