শহীদ জিয়ার জন্মদিনে নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা শাখার আলোচনা সভা

প্রকাশিত: ৮:২৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

শহীদ জিয়ার জন্মদিনে নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা শাখার আলোচনা সভা

 

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মদিন উপলক্ষে নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা আহ্বায়ক কমিটির উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় সিলেট নগরীর একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্স হলে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা শাখার আহ্বায়ক ডা. শাহ নেওয়াজ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব তাহছিন শারমিন তামান্নার পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, মুখ্য আলোচকের বক্তব্য রাখেন, সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক ও ড্যাব সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল শাখার সভাপতি ডা. মো. শামিমুর রহমান।

বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট সাংবাদিক সাবেক ছাত্রদল নেতা বদরুদ্দোজা বদর, নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা শাখার সদস্য নাজমা বেগম, ফেরদৌসী বেগম, সিলেট জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি ও সংগঠনের সদস্য চৌধুরী মোহাম্মদ সোহেল, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বিএনপির সাবেক প্রথম যুগ্ম সম্পাদক ও সংগঠনের সদস্য আব্দুল লতিফ খান, সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সহ প্রচার সম্পাদক মো. বোরহান উদ্দিন, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কল্লোল জ্যোতি বিশ্বাস জয়, নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম সিলেট জেলা শাখার সদস্য মাছুম পারভেজ, জাকির হোসেন।
অন্যন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রদল নেতা ওমর মাহবুব, জাহিদ হাসান পাবেল, মাফিন আহমদ, জইন উদ্দিন, আব্দুর রহিম, কামরান উদ্দিন অপু প্রমুখ।

 

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, শহীদ জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের গণমানুষের কাছে বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা ও বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে স্বীকৃত হয়েছেন। একজন সৈনিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করলেও তাঁর জীবনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে দেশের সকল সঙ্কটে তিনি ত্রাণকর্তা হিসেবে বার বার অবতীর্ণ হয়েছেন। দেশকে সংকট থেকে মুক্ত করেছেন। অস্ত্র হাতে নিয়ে নিজে যুদ্ধ করেছেন। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এ কারণেই এ দেশের সর্বস্তরের জনগণের অন্তরে স্থায়ী আসন করে নিয়েছেন। বক্তারা বলেন, যত অপচেষ্টাই করা হোক না কেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আর্দশকে পৃথিবীর কোন শক্তিই মুছে ফেলতে পারবে না। জিয়াউর রহমানের সৈনিক ও রাজনৈতিক জীবনের সততা, নিষ্ঠা ও নিরলস পরিশ্রম প্রতিটি মানুষ শ্রদ্ধাভরে এখনো স্মরণ করে। একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক হিসেবেও তাঁর পরিচিতি সর্বজনবিদিত।
সভার একপর্যায়ে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি জন্যও দোয়া করা হয়। বিজ্ঞপ্তি

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ