স্পেশাল

রায়হান হত্যার আসামী আকবর সহ বাকিরা কোথায়?

প্রকাশিত: ৫:৩৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০

রায়হান হত্যার আসামী আকবর সহ বাকিরা কোথায়?

 

সানডে সিলেট ডেস্ক

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনের মাধ্যমে রায়হান আহমদকে হত্যার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত এই ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়ার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে মহানগর পুলিশ। সোমবার সাময়িক বরখাস্তের পর থেকেই তিনি লাপাত্তা বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রায়হান হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে আকবর হোসেনসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বহিস্কার ও তিনজনকে ফাঁড়ি থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। আকবর ছাড়া বাকীরা সিলেট মেটোপলিটন পুলিশ লাইন্সেই আছেন বলে পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে।

প্রশ্ন উঠেছে, বাকী অভিযুক্তদের কেনো এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। রায়হানের মৃত্যুর ঘটনায় তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি বাদী হয়ে হেফাজতে মৃত্যু আইনে কতোয়ালি থানায় মামলা করেন। এই মামলায় এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হননি।

বর্তমানে মামলাটির তদন্ত করছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে পিবিআই-এর পুলিশ সুপার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খালেদুজ্জামান বলেন, পলাতক ব্যক্তিকে (এসআই আকবর) আমরা গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি।

বা্কী অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা আজকেই (বুধবার) মাত্র তদন্ত শুরু করেছি। তদন্তে যাদেরই সম্পৃক্ততা পাওয়া যাবে তাদেরই গ্রেপ্তার করা হবে।

রোববার রায়হান আহমদের মৃত্যুর পর সিলেট মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি  গঠন করা হয়। তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ার পর বন্দরবাজার ফাঁড়ির ৪ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত ও ৩ জনকে প্রত্যাহার করা হয়।

ফাঁড়ি ইনচার্জ আকবর ছাড়া বরখাস্ত হওয়া অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন- বন্দরবাজার ফাঁড়ির কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, তৌহিদ মিয়া ও টিটু চন্দ্র দাস।

প্রত্যাহার হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন- এএসআই আশেক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী ও কনস্টেবল সজিব হোসেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি