বিশ্বের গভীরতম সোনার খনিতেও করোনার হানা

প্রকাশিত: ৩:৩২ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২০

বিশ্বের গভীরতম সোনার খনিতেও করোনার হানা

সানডে সিলেট ডেস্ক: সোমবার, ২৫ মে ২০২০ : করোনাভাইরাস মহামারি বিশ্বের সব প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে। বাদ পড়েনি বিশ্বের গভীরতম সোনার খনিও। দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত ওই এমপোনেং সোনা খনি। সেখানকার শ্রমিকদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। খনিটির ১৬৪ জন শ্রমিক প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সেখানে আপাতত খননকাজ সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকায় লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই সেখানে খননকাজ প্রায় বন্ধ ছিল। তবুও মাঝে মধ্যে টুকটাক কাজ চলছিল। তারপর লকডাউন কিছুটা শিথিল হওয়ায় আবার খনিতে কাজ শুরু হয়েছিল। এবার সব বন্ধ। একসঙ্গে এত শ্রমিক করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় চিন্তায় পড়েছে কর্তৃপক্ষ।

 

লকডাউন শিথিল হওয়ার পর ৫০ শতাংশ শ্রমিককে কাজে ফেরানো হয়েছিল। তবে শ্রমিকরা নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। তারপরও কাজ চলছিল। এদিকে আক্রান্ত ১৬৪ জন শ্রমিকের শরীরে কোনোরকম উপসর্গ ছিল না বলে জানা গেছে। আপাতত শ্রমিকদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। আর খনির ভেতর চলছে জীবাণুনাশক ছিটানোর কাজ। গত সপ্তাহে প্রথমে একজন শ্রমিকের শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। এরপর ৬৫০ জন শ্রমিকের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। তারপর এত সংখ্যক শ্রমিকের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। দক্ষিণ আফ্রিকায় উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। দেশটিতে ২১ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৪০৭ জনের।

 

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আফ্রিকায় খনি শ্রমিকদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ ঘটে একটি প্লাটিনাম খনি থেকে। ওই খনির একজন শ্রমিকের শরীরে প্রথম করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়। এখন সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে সোনার খনিগুলোতেও।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি