স্পেশাল

বালাগঞ্জে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে কর্মস্থলে নেই ৫ সরকারি কর্মকর্তা

প্রকাশিত: ৯:৩১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২০

বালাগঞ্জে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে কর্মস্থলে নেই ৫ সরকারি কর্মকর্তা

তারেক আহমদ, সিলেট:: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন-১ শাখার গত ২৪ মার্চের একটি নির্দেশনা পত্রের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে সরকারি ছুটির দিনে কর্মস্থল ত্যাগ না করার জন্য সকল মন্ত্রনালয়/বিভাগের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিজ নিজ কর্মস্থল ত্যাগ না করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়৷ অথচ দেশের ক্রান্তিকালে ছুটির দিনে কর্মস্থল ত্যাগ না করার নির্দেশনা থাকা সত্বেও বালাগঞ্জ উপজেলার ৫ সরকারি কর্মকর্তা তোয়াক্কা করছেন না সরকারের এই নির্দেশনাটি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, বালাগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রকীব ভূইয়া, নির্বাচন কর্মকর্তা সোহরাব আহমেদ, পল্লী জীবিকায়ন প্রকল্প কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান, আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক বালাগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক মো. মোশাহিদ আলী তাদের কর্মস্থলে নেই। দেশের সংকটময় পরিস্থিতিতেও তারা সরকারের নির্দেশনা অমান্য করছেন বলে জানা যায়। এছাড়া উপজেলা পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপক ফরহাদ মনসুরের বাবার জরুরী অপারেশন থাকায় তিনি ছুটিতে রয়েছেন।

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন-১ শাখার উপ-সচিব মো. এনামুল হক স্বাক্ষরিত এই নির্দেশনা পত্রে বলা আছে, করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধ ও এর প্রাদুর্ভাব জনিত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের লক্ষে সরকার ঘোষিত ছুটি কালীন সময়ে সকল মন্ত্রণালয়/বিভাগ এবং এর আওতাধীন সকল দপ্তর/সংস্থার কর্মকর্তা/কর্মচারীদেরকে নিজ নিজ কর্মস্থল ত্যাগ না করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এদিকে, গত ৯ এপ্রিল সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে কর্মস্থলে অনুপস্থিত না থাকায় মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার ১১ সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য
মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম তাদের নিয়ন্ত্রনকারী মন্ত্রণালয়/বিভাগ সমূহকে একটি পত্র পাঠিয়েছেন।

কিন্তু সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলায় এই ৫ সরকারি কর্মকর্তা সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার পরও প্রয়োজনীয় কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।
তাদের অনুপস্থিতির কারণে বালাগঞ্জে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন কার্যক্রম সহ অন্যান্য সরকারি কর্মসূচি বাস্তবায়ন বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে কথা হয় বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাংশু কুমার সিংহের সাথে। তিনি বলেন, যারা সিলেট শহরে বসবাস করেন তাদেরকে যেকোনো প্রয়োজনে ফোন দিলে তারা বালাগঞ্জ আসেন। আরো একজন কর্মকর্তা করোনা প্রাদুর্ভাবের আগেই বাড়িতে চলে যান। এখন পরিবহন বন্ধ থাকায় তিনি আসতে পারছেন না। তবে তিনি আমার সাথে ফোনে যোগাযোগ করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ