স্পেশাল

ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর ষ্ক্রাপ নিলামে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ, শিল্পমন্ত্রী বরাবর অভিযোগ দাখিল

প্রকাশিত: ২:০৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃক বিলুপ্ত ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর লিমিটেডের বিভিন্ন ধরণের ষ্ক্রাপ মালামাল নিলামে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।
ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ করে ষ্ক্রাপ মালামালের নিলামের জন্য প্রকাশিত দরপত্র বাতিল করে পুনঃদরপত্র আহবানের অনুরোধ জানিয়ে গত ২৫ অক্টোবর গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্পমন্ত্রী, শিল্প সচিব ও বি.সি.আই.সি’র চেয়ারম্যান বরাবর একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেছে ষ্ক্রাপ মালামাল নিলামে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান “রিমি নির্মাণ সংস্থা”।
দাখিলকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃক বিলুপ্ত ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর সম্পূর্ন মেশিনারীজ ও ষ্ক্রাপ মালামাল নিলামের মাধ্যমে সর্বোচ্চ দরদাতাকে দরপত্রের সকল শর্তাবলী প্রতিপালন সাপেক্ষে গত ১৪ অক্টোবর তারিখে দরপত্রে বর্ণিত মালামাল বুঝিয়ে দেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু দরপত্র আহবানকারী প্রতিষ্ঠান শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃপক্ষ আইন পরিপন্থিভাবে দরদাতা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজের সাথে যোগসাজস করে ষ্ক্রাপ সমূহের সঠিক মূল্য নির্ধারণ না করে দরপত্র আহবানকারী প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ দরদাতা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজের কোনো প্রকার কাগজপত্র যাচাই-বাছাই না করে নিলামে অংশগ্রহণকারী কোনো প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ দরদাতা প্রমাণের সমর্থনে পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট ও অন্যান্য কাগজপত্র দেখানো হয়নি। যা সরকারী মালামাল নিলাম আইনের পরিপন্থি কার্যক্রম বলেও অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।
এছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিকট সাব কন্ট্রাক্ট দেয়ার জন্য ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর গহীনে বাংলাদেশ সরকারের বিক্রয় নিষিদ্ধ বৃটিশ আমলের শতাধিক ম্যাগনেট পিলার ৫০০ কোটি টাকার অধিক মূল্যে বিক্রির পায়তারা চলছে বলেও অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়। সরকার ঘোষিত চোরাচালান ও বিশেষ ক্ষমতা আইন তথা অন্যান্য ফৌজদারী আইনের আওতাভূক্ত অপরাধ এবং বেআইনি অপরাধ সংক্রান্ত কাজে মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজের সাথে শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের সম্পৃক্ততা রয়েছে।
দরপত্র আহবানকারী প্রতিষ্ঠান শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড ও সর্বোচ্চ দরদাতা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজ দরপত্রে উল্লেখিত ৯.০১ ধারার বিধানের পরিপন্থি কাজ করেছেন ।
উল্লেখ্য, দরপত্রের ৯.০১ ধারায় উল্লেখ আছে- কোনো প্রকার সাব কন্ট্রাক্ট দেয়া যাবে না, দিলে দরপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।
নিলামে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান “রিমি নির্মাণ সংস্থা” আরো অভিযোগ করেছে, দরপত্র বিজ্ঞপ্তিতে যেসব মালামালের বিবরণ উল্লেখ করা হয়েছিল তা সরেজমিনে দেখতে মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজ ছাড়া নিলামে অংশগ্রহণকারী অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বিলুপ্ত ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর গোডাউনে গেলে দরপত্রে উল্লেখিত সব মালামাল সেখানে দেখতে পান নি। এছাড়াও দরপত্র আহবানকারী প্রতিষ্ঠান শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজ ছাড়া অংশগ্রহণকারী অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে উল্লেখিত মালামালের মূল্যমান ৪০ কোটি টাকা হবে বলে মৌখিক ভাবে জানান এবং নিলামে অংশগ্রহণ না করার ভয়ভীতি দেখান বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।
শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সহ কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ ব্যক্তিগত ভাবে লাভবান হওয়ার জন্য মেসার্স আতাউল্লাহ এন্টারপ্রাইজকে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে মালামাল সমজিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে সরকার বিপুল পরিমার রাজস্ব প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

লিখিত অভিযোগে “রিমি নির্মাণ সংস্থা”র স্থানীয় প্রতিনিধি শায়েস্তা মিয়া সরকারের বিপুল পরিমান রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে এবং ন্যায় ও আইনের শাসন বাস্তবায়নের নিমিত্তে শাহজালাল ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃক বিলুপ্ত ন্যাচারাল গ্যাস ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরীর বিভিন্ন ধরণের ষ্ক্রাপ মালামাল নিলামের জন্য প্রকাশিত দরপত্র বাতিল করে পুনঃদরপত্র আহবান ও সংশ্লিষ্ট দোষী ব্যক্তিগণের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ