নিয়মিত আদালত চালুর দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত: ৯:০০ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২১

নিয়মিত আদালত চালুর দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ

সানডেসিলেট:: সাতক্ষীরা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শাহ আলম এডভোকেটের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং নিয়মিত আদালত চালুর দাবিতে সিলেটের সাধারণ আইনজীবীদের উদ্যোগে  এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

 

বৃহস্পতিবার(২০মে) জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম এডভোকেট। সভায় প্রারম্ভিক বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ফজলুল হক সেলিম। বক্তব্য রাখেন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি এ.টি.এম. ফয়েজ উদ্দিন এডভোকেট, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান এডভোকেট, সিনিয়র আইনজীবী শহীদুজ্জামান চৌধুরী এডভোকেট, মৌলানা আব্দুর রকিব এডভোকেট, আব্দুল ওদুদ এডভোকেট, আনোয়ার হোসেন এডভোকেট। সভা পরিচালনা করেন সাবেক যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ূন রশীদ সোয়েব এডভোকেট। উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার আলীম উদ্দিন এডভোকেট, সাবেক নির্বাচন কমিশনার জ্যোতির্ময় পুরকায়স্থ কাঞ্চন এডভোকেট, যুগ্ম সম্পাদক শিব্বির আহমদ বাবলু এডভোকেট, হোসাইনুর রহমান লায়েছ এডভোকেট, মোস্তফা শাহীন চৌধুরী এডভোকেট, সফিকুল ইসলাম সবুজ এডভোকেট, ইকবাল আহমদ এডভোকেট, নির্মলেন্দু চৌধুরী পান্না এডভোকেট, রণজিৎ সরকার এডভোকেট, মোবারক হোসাইন এডভোকেট, ইয়াছির আরাফাত এডভোকেট, টিপু রঞ্জন দাশ এডভোকেট, আব্দুর রহমান আফজল এডভোকেট, ইমরান আহমদ এডভোকেট, তোফায়েল আহমদ এডভোকেট, মোঃ আব্দুল গফফার এডভোকেট, ওবায়দুর রহমান এডভোকেট, সালেহ আহমদ এডভোকেট, কবির আহমদ এডভোকেট, আলী হায়দার ফারুক এডভোকেট, মুমিনুর রহমান টিটু এডভোকেট, কাউসার আহমদ এডভোকেট, অনির্বান দাস প্রিন্স এডভোকেট, রুনা বেগম এডভোকেট, সালেহ আহমদ এডভোকেট, আফজাল মিয়া তালুকদার এডভোকেট, আবু সালেহ চৌধুরী এডভোকেট, মিজানুর রহমান এডভোকেট ও আব্দুর রাজ্জাক এডভোকেট প্রমুখ।

 

 

বক্তাগণ বলেন, সাতক্ষীরা জেলা বারের সাতবারের নির্বাচিত সাবেক সভাপতি অত্যন্ত জনপ্রিয় একজন আইনজীবীকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছিল। পরের দিন আদালত তাকে জামিন দিলেও এই মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানান। এভাবে একজন সিনিয়র আইনজীবী পুলিশ কর্তৃক হেনস্থা হয়ে হাতকড়া পরিয়ে গ্রেফতার করা গোটা আইনজীবী সমাজকে বিক্ষুব্ধ করেছে। তাই যেকোন মামলায় বা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে বার কাউন্সিল ও সংশ্লিষ্ট বার সমিতির পূর্বানুমতি ছাড়া কোন আইনজীবীকে গ্রেফতার করা যাবেনা মর্মে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।

বক্তাগণ আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে চলমান লকডাউন প্রায় দেড় মাসেরও বেশী সময় ধরে আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এর ফলে বিচারপ্রার্থী জনগণ এবং আইনজীবীদের কথা বিবেচনায় নিয়ে সীমিত ভার্চুয়াল আদালতের পরিবর্তে স্বাভাবিক নিয়মিত আদালত চালু করা সময়ের দাবি। এছাড়া ভার্চুয়াল আদালতকে কেন্দ্র করে জি.আর.ও এবং আদালত সংশ্লিষ্ট কর্মচারীদের দূর্নীতি এবং বেপরোয়া আচরণ বন্ধ করার জন্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানান।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ