স্পেশাল

তিতাও ভালো

প্রকাশিত: ৫:৩১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৮

তিতাও ভালো

সানডে সিলেট ডেস্ক : সোমবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ : অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি শরীরের জন্য তিক্ত খাবারের প্রয়োজন রয়েছে। দেহের ভেতর বিষাক্ত-পদার্থ পরিষ্কার করার পাশাপাশি তিতা-খাবার বিপাকীয় কার্যক্রম বাড়ায়।

করলা ছাড়াও টকজাতীয় ফল এমনকি তিতা খাবার হিসেবে ডার্ক চকলেটও শরীরের জন্য উপকারী। পুষ্টিবিজ্ঞানের তথ্য নিয়ে খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে কয়েকটি তিতা-খাবারের উপকারিতা এখানে দেওয়া হল।

করলা: সুস্বাস্থ্যের খাতিরে এই সবজিকে নিয়মিত খাদ্যতালিকায় রাখার পরামর্শ দেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এতে থাকে ব্যাকটেরিয়ানাশক উপাদান যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। সংক্রমণ রোধ করতে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতেও এর জুড়ি মেলা ভার। আর সঠিকভাবে রান্না করতে পারলে করলাও সুস্বাদু হতে পারে।

ডার্ক চকলেট: দোকানের অন্যান্য চকলেট যত দ্রুত বিক্রি হয় ডার্ক চকলেট কিন্তু ততটা দ্রুত বিক্রি হয় না। কারণ সবাই কমবেশি চকলেটপ্রেমী হলেও পয়সা দিয়ে ডার্ক চকলেট কিনে খাবে এমন মানুষ তুলনামূলক কম।

দ্রবণীয় আঁশ, খনিজ এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর থাকে এই ডার্ক চকলেট। প্রতিদিন দুই টুকরা ডার্ক চকলেট থাওয়ার অভ্যাস করলে হৃদযন্ত্র সুস্থ থাকবে, আবার মল অপসারণ প্রক্রিয়াও সহজ হবে।

মেথি গাছ: পত্রল এই সবজি মায়েদের অনেক পছন্দ, আর মায়ের যা পছন্দ তার স্বাস্থ্যগুণ না থেকে যাবে কোথায়। মূলত মেথি গাছের বীজ মসলা হিসেবে রান্নায় ব্যবহৃত হয়ে থাকে। তবে এই গাছ শুকিয়ে ভেষজ হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

স্বাস্থ্যগুণের মধ্যে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণ, ক্যান্সার থেকে সুরক্ষা, হজমে সহায়তা, বুক জ্বালাপোড়া কমানো ইত্যাদি অন্যতম।

লেবুজাতীয় ফল: পাকা অবস্থায় টক-মিষ্টি স্বাদের কমলা, মাল্টা, লেবু ইত্যাদি খেতে পছন্দ করেন সবাই। তবে কাঁচা অবস্থায় যখন এদের স্বাদ তিতা হয় তখন খেতে দিলে মুখ বাঁকানো স্বাভাবিক।

তবে এই ফলগুলো যত বেশি তিতা, তাদের পুষ্টিগুণ ততই বেশি। হজমের সমস্যা সমাধানে কুসুম গরম লেবুর শরবত অনন্য।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ