স্পেশাল

গণপিটুনি-পুলিশী নির্যাতনসহ বিনাবিচারে হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি;দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’র গণস্বাক্ষর

প্রকাশিত: ৯:৪০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০২০

গণপিটুনি-পুলিশী নির্যাতনসহ বিনাবিচারে হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি;দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’র গণস্বাক্ষর

সানডেসিলেট প্রতিবেদকঃ গণপিটুনি ও পুলিশী নির্যাতনে হত্যাসহ বিনাবিচারে সবধরনের হত্যাকাণ্ড বন্ধ এবং ধর্ষণ ও নারী নিপীড়ন বন্ধের দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছে নাগরিক মোর্চা ‘দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’। শনিবার (৩১ অক্টোবর) বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

গণস্বাক্ষর কর্মসূচি চলাকালে সংহতি জানিয়ে বক্তৃতায় সিলেটের বিভিন্ন অঙ্গনের প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিরা বলেন, দেশে আইনের শাসন না থাকা ও বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু হওয়ায় একের পর বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ঘটছে। যার সর্বশেষ ঘটনা ঘটেছে লালমনিরহাটে। ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ এনে সেখানে এক নীরিহ ব্যক্তিকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। মৃত্যুর পর ওই ব্যক্তির লাশও পুড়িয়ে দিয়েছে হিংস্র জনতা। প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটলেও এখন পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। যারা এধরনের অপরাধ থামানো ও অপরাধীদের গ্রেপ্তার করার কথা সেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিজেরাই জড়িয়ে পড়ছে অপরাধ কর্মকাণ্ডে। সিলেটে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে পিটিয়ে রায়হান নামের এক যুবককে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে।

বক্তারা লালমনিরহাটে শহীদুন্নবী জুয়েল ও সিলেটে রায়হান আহমদ হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান। একইসঙ্গে সবধরনের বিচার বহির্ভূত হত্যা বন্ধেরও দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের ঘটনাও আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে। ধর্ষকদের দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করা না গেলে এধরণের কর্মকাণ্ড রোধ করা সম্ভব নয়।

সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের পরিবারের পক্ষে তার ছোটভাই রাব্বি আহমদ তানভীর সাক্ষর দিয়ে এই কর্মসূচির সূচনা করেন।

সাক্ষর প্রদানের পর এই কর্মসূচির সাথে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, বিনাবিচারে সব ধরণের হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে হবে। দেশে আইনের শাসন নিশ্চিত করতে হবে। কেউ যাতে বিনাবিচারে হত্যার শিকার না হয় এজন্য আমাদের রাজপথে সোচ্চার থাকতে হবে।

‘দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’-এর সংগঠক দেবব্রত চৌধুরী লিটনের সঞ্চালনায় এতে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থ, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদউল্লাহ শহিদুল ইসলাম শাহিন, ওয়ার্কার্স পার্টি সিলেটের সভাপতি সিকান্দার আলী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশু, রায়হান আহমদের খালা আয়শা আহমদ, সাংস্কৃতিক সংগঠক শামসুল বাসিত শেরো, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, ইমজা সিলেটের সাধারণ সম্পাদক সজল ছত্রী, কবি আবিদ ফায়সাল, কবি প্রণবকান্তি দেব, সমাজকর্মী নিগার সুলতানা, ‘দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’-এর সংগঠক আব্দুল করিম কিম, আশরাফুল কবির প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ