এসসিএস’র সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সিলেটের ক্যাবল টিভি ফিড অপারেটর সমিতির সভা

প্রকাশিত: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ, জুন ৭, ২০২০

এসসিএস’র সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সিলেটের ক্যাবল টিভি ফিড অপারেটর সমিতির সভা

সানডে সিলেট : রবিবার, ০৭ জুন ২০২০ : অস্বাভাবিক হারে ফিডবিল বৃদ্ধি, ফিডবিল নীতিমালা না থাকা, ক্যাবল ফিড অপারেটরদের সাথে অনৈতিক আচরণ ইত্যাদির প্রতিবাদে সিলেটের একমাত্র ক্যাবল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সিলেট ক্যাবল সিস্টেমস (প্রা.) লিমিটেড (এসসিএস)-এর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকদিন থেকে আন্দোলন করে আসছিল সিলেটের ক্যাবল ফিড অপারেটরদের সংগঠন ’সিলেট ক্যাবল টিভি ফিড অপারেটর সমিতি’। সিলেটে ক্যাবল সেবা প্রদানকারী বিভিন্ন ক্যাবল অপারেটরদের সমন্বয়ে গঠিত এ সমিতি ৬ জুন রোজ শনিবার বিকালে শহরতলী ৪ নং খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সভাকক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত করে। এডভোকেট আফসর আহমেদের সভাপতিত্বে এবং এডভোকেট জাহিদ সারওয়ার সবুজ-এর পরিচালনায়,

 

এসময় সভায় সমিতির প্রায় চল্লিশজন সদস্য অংশ নেন। এসময় সিলেটের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত ক্যাবল অপারেটরগন তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন। বক্তারা তাদের সমিতি থেকে জানানো দাবী মেনে নেয়ার জন্য এসসিএস-কে ধন্যবাদ জানান। এসসিএস থেকে প্রদান করা বিভিন্ন অপারেটরদের চিঠি নিয়ে বিস্তরিত আলোচনা করেন।  সোশ্যাল মিডিয়া সার্ভিস-এর সত্ত্বাধিকারী জিয়াউর রহমান চৌধুরী সুচনা বক্তব্য প্রদানকালে বলেন, এসসিএস-এর সঙ্গে আলোচনায় বসা খুবই জরুরী। শুধুমাত্র চিঠির মাধ্যমে এসব সমস্যার সমাধান হবে না। তাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে এসসিএস-এর সাথে সমিতির প্রতিনিধির আলোচনার তাগিদ দেন।

 

ওয়ার্ল্ড ক্যাবল, সুবিদবাজার-এর সত্ত্বাধিকারী আব্দুল হালিম চৌধুরী সানি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সমস্যা সমাধানের জন্য এসসিএস ফিড অপারেটরদের যে চিঠি দিয়েছেন তার ভাষা অত্যন্ত আপত্তিজনক। বিশেষকরে ’সমুচিত ব্যবস্থা গ্রহণ’ যে শব্দ তারা ব্যবহার করেছেন তা ব্যবসায়ী চিঠি হতে পারে না। তিনি এসসিএস-কে এ ধরণের শব্দ পরিহার করে সভ্য ও সুন্দর ভাষায় চিঠি লেখার আহবান জানান। সমিতি আইনগত বিষয় নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সমিতির আইনগত দিক নিয়ে কাজ চলছে। খুব তাড়াতাড়ি তিনি সংগঠনের আইনগত আনুষ্ঠানিকতা শেষ করবেন। তবে এই মুহূর্তে সমিতির কার্যক্রম পরিচালনা করতে কোনো অসুবিধা নেই।

 

মোগলাবাজার ক্যাবল সিস্টেমস-এর সত্ত্বাধিকারী সেলিম আহমদ বলেন, এসসিএস থেকে আমাদের সাথে বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করা হচ্ছে। তাদের মূল উদ্দেশ্য আমাদের সমিতির অগ্রগতি ব্যাহত করা। সমিতির অগ্রগতি দেখে এসসিএস-এর মাথা ব্যাথা শুরু হয়ে গেছে। এর আগেও আমরা একটি সংগঠন করেছিলাম। এসসিএস সেটাকে শেষ করে দিয়েছে। এইবার শপথ করেছি, ব্যবসায় যদি করতে হয়, তবে ইজ্জত নিয়ে করব। আর নিজেকে শেষ করে এ ধরনের একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে থাকব কি-না তা চিন্তা করার সময় এসেছে।

 

প্রয়াস স্যাটেলাইট সার্ভিস, ফেঞ্চুগঞ্জ-এর সত্ত্বাধিকারী দিলাল আহমদ বলেন, এসসিএস আমাদের সাথে যে ব্যবহার করে তা সভ্য সমাজে কেউ মেনে নিতে পারে না। যদি এসব চলতে থাকে তবে আমাদের বিকল্প চিন্তা করতে হবে। আর তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে এসসিএস-এর বিকল্প কঠিন কিছু নয়। এসসিএস-এর সার্ভিস নিয়ে বলেন, লাইন নষ্ট হলে ২৫-৩০ ঘণ্টার আগে তা পুনরায় চালু করতে পারে না। এর পরও আমার বিল দিয়ে যাচ্ছি।
টি সি নেটওয়ার্ক,তেলিবাজার-এর সত্ত্বাধিকারী মকসুদুল করিম নুহেল সম্প্রতি সিলেটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আর এল ইলেকট্রনিক্স এর সত্ত্বাধিকারী ইকবাল হোসেন খোকা-এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়।

 

সাহেবের বাজার ক্যাবল নেটওয়ার্ক -এর সত্ত্বাধিকারী ইসামাইল আহমদ বলেন, আজ আমার একটি ভরসার জায়গা হয়েছে। মনে হচ্ছে, আমি একা নই। আমাদের মত ছোট নেটওয়ার্কের প্রতি এসসিএস-এর কোন নজর নেই। তিনি বলেন, সমিতির মাধ্যমে আমার ন্যায়সঙ্গত দাবী আদায় করতে পারব।
গুরুত্বপূর্ণ এ সভায় যারা আরও বক্তব্য রাখেন, তুহিন কান্তি নাগ, শেখ সামাদ আহমদ, আফজাল হোসেন, মোঃ আলা উদ্দীন, মোহাম্মদ লাহিন উদ্দিন, শেখ ফখরুল ইসলাম ফখর, শামীম আহমদ, শাহীদুল হক সাজিদ, জমিরুল ইসলাম, মোঃ নাসির উদ্দিন, হিসান আহমেদ মিশু, আবুল হাসান রুহিন, মিজানুর রহমান ভুঁইয়া, সৈয়দ সেলিম আহমদ, এসফাকুর রহমান চৌধুরী টিটু , কামরানুল ইসলাম কামরান, মুরাদ আহমদ প্রমুখ। সমাপনী বক্তব্যে এডভোকেট আফসর আহমেদ তাদের দাবী মেনে নেয়ায় এসসিএস-এর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, আমাদের প্রাথমিক বিজয় অর্জন হয়েছে। সম্মিলিত আন্দোলন করায় আজ সফলতা এসেছে। তবে তিনি সবাইকে সতর্ক থাকার আহবান জানান।

 

তিনি মনে করেন, এখানেই শেষ নয়-আমাদের এগিয়ে যেতে হবে অনেক দুর। তিনি বলেন, এসসিএস-এর সাথে আলাপ-আলোচনা চলছে। খুব শীঘ্রই তাদের সাথে আলোচনায় বসার কথা। আমরা সমিতি থেকে তাদেরকে আলোচনার প্রস্তাব জানাবো। তারা বসতে চাইলে আমাদের কোনো আসুবিধা নেই। তিনি বলে, আমাদের সমিতিকে স্বীকৃতি না দিয়ে তারা একটি আশালীন ভাষার চিঠি দিয়েছে। আশা করি সভ্য সমাজ একদিন এর বিচার করবে। তিনি বলেন, এসসিএস গঠনের সময় তারা বলেছিল সকল ক্যাবল ব্যবসায়ী একটি পরিবারে মত চলবে। কিন্তু তারা সে আদর্শ থেকে সরে গেছে। তারা এখন টাকা ছাড়া কিছু বুঝেনা। দেশের বিভিন্ন কোম্পানি তার গ্রাহকের নিয়ে বিভিন্ন রকমের বার্ষিক অনুষ্ঠান করে,কিন্তু এসসিএস কে এধরনের অনুষ্ঠান করতে দেখা যায় না। তারা চায় না আমরা ফিড অপারেটরা এক হই। তিনি হজরত শাহপরান (র.) এর নাম নিয়ে বলেন, যতদিন এই ব্যবসায় থাকব সমিতির সাথে বেঈমানী করব না- সমিতির সিদ্ধান্ত মেনে চলব।

 

সভায় বিভিন্ন সিদ্ধান্তের ওপর সবাই একমত হন। সভা থেকে এসসিএস-এর অন্যতম পরিচালক এডভোকেট জুনেল আহমদ-এর সাথে মোবাইলফোনে যোগাযোগ করে এসসিএস-এর সাথে ’সিলেট ক্যাবল টিভি ফিড অপারেটর সমিতি’র আলোচনা সভা করার বিষয়টি জানানো হয়। সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয় এসসিএস-এর সাথে আলোচনা করে বকেয়াসহ সমুদয়বিল পরিশোধের বিষয়টি সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এখন থেকে প্রতি মাসের প্রথম শনিবারে সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ

ই-মেইল :Sundaysylhet@Gmail.Com
মোবাইল : ০১৭১১-৩৩৪২৪৩ / ০১৭৪০-৯১৫৪৫২ / ০১৭৪২-৩৪৬২৪৪
Designed by ওয়েব হোম বিডি