স্পেশাল

এমসি কলেজে ভাঙচুর: চার আসামি কারাগারে

প্রকাশিত: ৩:৫৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০১৭

এমসি কলেজে ভাঙচুর: চার আসামি কারাগারে

সানডে সিলেট শুক্রবার, ০৪ আগস্ট ২০১৭ : সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাস ভাঙচুরের মামলায় অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি ছাত্রলীগের চার কর্মীকে আজ বৃহস্পতিবার কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন সিলেটের মুখ্য মহানগর বিচারিক হাকিম।

গত ১৩ জুলাই ছাত্রলীগের দুই পক্ষ আধিপত্য বিস্তার করতে গিয়ে ছাত্রাবাস ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় ১৬ জুলাই এমসি কলেজের অধ্যক্ষ নিতাই চন্দ্র চন্দ বাদী হয়ে শাহপরান থানায় ৩৫ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২৩ জুলাই মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করে পুলিশ। এতে ছাত্রলীগের ১০ কর্মীকে অভিযুক্ত করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার অভিযোগপত্রভুক্ত চার আসামি মুখ্য মহানগর বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে বিচারক মো. সাইফুজ্জামান হিরো জামিন নামঞ্জুর করে তাঁদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো ছাত্রলীগের চার কর্মী হলেন এমসি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কর্মী সুনামগঞ্জের অচিন্তপুরের রফিজুল ইসলাম, নারায়ণতলার আনোয়ার হোসেন, তাহিরপুরের তানভির হাসান ও জগন্নাথপুরের নিউটন দে।

পুলিশ জানায়, ১৩ জুলাই ছাত্রাবাস ভাঙচুরের পরপরই সিলেটের কুমারগাঁও বাসস্টেশন থেকে রবিউল, শিহাব, কাউসার, শাওন, সোহাগ মিয়া ও সৌরভ আচার্য্য নামে ছাত্রলীগের ছয় কর্মীকে আটক করে পুলিশ। পরে মামলা হলে আটক ছয়জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এ ছয়জন বর্তমানে কারাগারে আছেন। মামলার প্রধান আসামি এমসি কলেজ ছাত্রলীগের একটি পক্ষের নেতা টিটু চৌধুরী। তিনি পলাতক। অভিযোগপত্রে টিটু চৌধুরীসহ ১০ জন ও তাঁদের সহযোগী আরও ৩৫ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

১৮৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত এমসি কলেজ সিলেটের অন্যতম প্রাচীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। নগরের টিলাগড় এলাকায় ৬০০ শতক জায়গার ওপর ১৯২০ সালে ব্রিটিশ আমলে আসাম ঘরানার স্থাপত্যরীতির ছাত্রাবাস নির্মাণ করা হয়েছিল। ২০১২ সালের ৮ জুলাই ছাত্রলীগ-শিবির সংঘর্ষের জের ধরে আগুন দিয়ে পোড়ানো হয়েছিল ছাত্রাবাসের ৪২টি কক্ষ। শিক্ষামন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় ছাত্রাবাস আগের কাঠামোয় পুনর্নির্মাণ করা হয়।

২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর শিক্ষামন্ত্রী পুনর্নির্মিত ছাত্রাবাস উদ্বোধন করেন। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রায় পাঁচ বছর পর এবার ছাত্রলীগ নিজেদের আধিপত্য বিস্তারে ভাঙচুর করে ছাত্রাবাস। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রায় এক সপ্তাহ বন্ধ রাখার পর গত ২৯ জুলাই ছাত্রাবাস খোলা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ