ইউনাইটেড ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী ও জেলা ফুটবল দলকে সংবর্ধনা

প্রকাশিত: ১:৪১ পূর্বাহ্ণ, মে ৩০, ২০২১

ইউনাইটেড ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী ও জেলা ফুটবল দলকে সংবর্ধনা

সিলেটের ক্রীড়াঙ্গনের ঐতিহ্য ফেরাতে সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালাতে হবে: অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:: আনন্দঘন পরিবেশে সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ উপজেলার সাবেক ও বর্তমান সময়ের বিভিন্ন ক্লাব কর্মকর্তা, ক্রীড়া সংগঠক ও খেলোয়াড়দের নিয়ে সিলেট ইউনাইটেড ক্লাব ও ক্লাবের সভাপতি, দক্ষিণ সুরমার কৃতি সন্তান শমশের জামালের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী ও সিলেট জেলা ফুটবল দলকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

 

 

শুক্রবার(২৮মে)  রাতে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার একটি কমিউনিটি সেন্টারে দুই পর্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ, আলোচনা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

 

 ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাসুক আহমদের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ইউনাইটেড ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান বলেন, সিলেটের ক্রীড়াঙ্গনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে সকলকে সম্মিলিতভাবে প্রচেষ্টা চালাতে হবে। বিশেষ করে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাদেরকে নিয়মিত লীগসহ বিভিন্ন ক্রীড়া ইভেন্ট আয়োজনে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। এক্ষেত্রে ব্যক্তি বিশেষকে তোষামোদসহ কোন ধরনের অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়া যাবে না। সিলেটের খেলোয়াড়দের সুপ্ত প্রতিভাকে বিকশিত করে তাদেরকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পৌঁছাতে হবে, যাতে তারা সিলেটের সুনাম বয়ে আনতে পারে সেই প্রচেষ্টা চালাতে হবে। সিলেট স্টেডিয়াম যেন প্রতিদিন সরব থাকে কর্মকর্তাদেরকে সে প্রচেষ্টা চালাতে হবে। তিনি আরো বলেন,  প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা খেলোয়াড়দেরকে সব সময় উৎসাহিত করে থাকেন। এজন্য সকলকে প্রতিটি ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ে খেলার মাঠ তৈরির প্রচেষ্টা করতে হবে তাহলে দক্ষ খেলোয়াড় সৃষ্টি সম্ভব।

ইউনাইটেড ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী ও জেলা ফুটবল দলকে সংবর্ধনা

ক্লাব কর্মকর্তা মনোজ রায়, জাকারিয়া চৌধুরী শিপলু ও লায়েক আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় আয়োজিত আলোচনা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, বিএমএ’র কেন্দ্রীয় মহাসচিব ডা: এহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল হালিম সুনু মিয়া, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সুজাত আলী রফিক, কবির উদ্দিন, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এটিএম ফয়েজ, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্বাস উদ্দীন, উপ দপ্তর সম্পাদক মজির উদ্দিন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, এ আর সেলিম, সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ফেরদৌস চৌধুরী রুহেল, সদস্য এম এ মিরাজ জাকির, সমর চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, হাজি মিলাদ আহমদ, ফাহমিন মোর্শেদ চৌধুরী বাবু, নুরে আলম খোকন, লাউয়াই স্পোটিং ক্লাবের সভাপতি গোলাম হাদি সাইফুল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, শাহ স্পোর্র্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস উদ্দিন আক্কাই, কসমস ক্লাবের সভাপতি জামাল উদ্দিন, ওয়ান্ডার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুফতি আব্দুল খাবির, মোহনবাগান ক্লাব কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন হেলাল, জিএসএর সাবেক সদস্য হাজী মহসিন আহমদ চৌধুরী, এডভোকেট দিলীপ কুমার কর, আব্দুল আরিছ, ইরান আহমদ, আহমদ জুলকার নাইন, তপন পাল, তাহসিন আহমদ দিপু, ওয়েছ আহমদ, ময়ুরকোঞ্জ কমিউনিটি সেন্টারের স্বত্ত্বাধিকারী শিমুল আহমদ, সিলেট জেলা ফুটবল দলের সাবেক খেলোয়ারদের মধ্যে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন কয়সর আহমদ, দুলাল আহমদ, নাসির উদ্দিন, কয়েছ আহমদ, সুলতান আহমদ, ইকবাল আহমদ, চেরাগ উদ্দিন, শাহাজ উদ্দিন টিপু, আবদাল আহমদ, লায়েছ আহমদ, কামাল আহমদ, নুরে আলম রাহেল, রুবেল আহমদ নান্নু, আজাদুর রহমান চঞ্চল, রাসেল আহমদ,মুক্তার আলী, সালা উদ্দিন রাজু, সামছুল ইসলাম, রাজা চৌধুরী, জাহেদ আহমদ, খালেদ আহমদ, আজিজুর রহমান মিটন, সুহেল আহমদ, শাকিল আহমদ মুন্না, আব্দুল খালিক, টুটুল আহমদ প্রমুখ।

 

 

ইউনাইটেড ক্লাবের সভাপতি শমশের জামাল বলেন, ইউনাইটেড ক্লাব সব সময় নিয়মিত ক্রীড়া চর্চাসহ সিলেটের ক্রীড়াঙ্গনের ঐতিহ্য সম্মান বজায় রাখতে সচেষ্ট। আমরা খেলোয়াড়দের উৎসাহিত করার জন্য বিভিন্ন সময় এই ধরনের আয়োজন করে থাকি। আমাদের আজকের এই আয়োজনের মাধ্যমে আমরা আশা করি খেলোয়াড়রা উৎসাহিত হবেন এবং সিলেটের ক্রীড়াঙ্গনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে প্রচেষ্টা চালাবেন। আমি এব্যাপারে সকল মহলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ