প্রচ্ছদ

সিলেটে জালালাবাদ গ্যাস অফিসে জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস পালিত

০৯ আগস্ট ২০১৯, ১৫:২২

Sundaysylhet.com

সানডে সিলেট: শুক্রবার, ০৯ আগস্ট ২০১৯ : জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস উদযাপন উপলক্ষে জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিসন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম লিমিটেড (জেজিটিডিএসএল) সিলেট -এর প্রধান কার্যালয় গ্যাস ভবনে গতকাল ৯ আগস্ট শুক্রবার সকাল ১০টায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতা উত্তরকালে জাতীয় অগ্রগতির লক্ষ্যে যে সকল দূরদর্শী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন। তন্মধ্যে জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তার বিষয়টি ছিল অন্যতম। তাঁরা বলেন- বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নির্দেশনামতে ১৯৭৫ সালের ৯ আগস্ট তৎকালীন বিদেশী কোম্পানি শেলওয়েল এর মালিকানাধীন দেশের ৫টি বৃহৎ গ্যাস ফিল্ড যথা ঃ তিতাস, হবিগঞ্জ, রশিদপুর, কৈলাশটিলা ও বাখরাবাদ বাংলাদেশ সরকার মাত্র ৪.৫ মিলিয়ন পাউন্ড স্টার্লিং বা ১৭.৮৬ কোটি টাকা অর্থাৎ নামমাত্র মূল্যে ক্রয় করে রাষ্ট্রীয় মালিকানাভূক্ত করেন। এখান থেকেই মূলতঃ বাংলাদেশে জ্বালানি নিরাপত্তার ভিত্তি রচিত হয়। বঙ্গবন্ধুর এ প্রস্তাব ও বিচক্ষণ সিদ্ধান্তের ফলে প্রায় চার যুগেরও বেশী সময় ধরে এ গ্যাস ক্ষেত্রগুলো সারা বাংলাদেশে শুধু জ¦ালানি সরবরাহ করেনি, দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা অর্জনেও অবদান রেখেছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন-কোম্পানীর মহাব্যস্থাপক প্রকৌশলী মো: শাহীনুর ইসলাম। বক্তব্য রাখেন- কোম্পানীর মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো: আব্দুল মুমিন, কোম্পানীর মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো: শোয়েব আহমদ মতিন, ব্যস্থাপক তৌফিকুল আহসান চৌধুরী ও সহকারী ব্যবস্থাপক মো: হামিদ হোসেন। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন- কোম্পানীর উপ-মহাব্যবস্থাপক মো: শহীদুল ইসলাম। এছাড়া সভায় কোম্পানির উর্দ্ধতন কর্মকর্তাসহ সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন-বর্তমান সরকারও দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা অর্জনে সর্বাধিক গুরুত্ব আরোপ করে বিভিন্ন দূরদর্শী ও সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন করার ফলে জ্বালানি খাতে অভূতপূূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকার ঘোষিত রূপকল্প-২০২১ ও রূপকল্প-২০৪১ অর্জনে জ্বালানির ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণ নিশ্চিত করতে সরকার দীর্ঘমেয়াদী ও বাস্তবমূখী কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এ উদ্যোগের মধ্যে অন্যতম যুগান্তকারী পদক্ষেপ হচ্ছে বিদেশ থেকে এলএনজি আমদানি। আগস্ট,২০১৮ হতে কক্সবাজারের মহেশখালীতে স্থাপিত ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল (এফএসআরইউ) থেকে জাতীয় গ্রীডে গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়েছে। ফলে গ্যাসের ঘাটতি অনেকটা পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে

জাতীয় জ্বালানি দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় বক্তারা জানান- দেশে জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নতুন নতুন গ্যাস ক্ষেত্র অনুসন্ধান, এলপিজি ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার সম্প্রসারণেও সরকার বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। সরকারের বিগত ও বর্তমান সময়কালে প্রায় ১০ বছরে দৈনিক গ্যাস উৎপাদনের পরিমাণ ৯৯২ মিলিয়ন ঘনফুট হতে বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে দৈনিক ৩২০০ মিলিয়ন ঘনফুটে উন্নীত হয়েছে। সভায় আরো উল্লেখ করা হয় যে, দেশে উৎপাদিত প্রাকৃতিক গ্যাসের প্রায় ৫৭% গ্যাসই ব্যবহৃত হয় বিদ্যুৎ উৎপাদনে। জ্বালানি নিরাপত্তার অংশ হিসেবে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করে জালালাবাদ গ্যাস উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে। অত্র কোম্পানির আওতাধীন এলাকায় মোট ১৭টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দৈনিক প্রায় ১৯০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে উক্ত বিদ্যুৎ কেন্দ্রসমূহে জালালাবাদ গ্যাস দৈনিক প্রায় ৩০০ এমএমসিএফডি গ্যাস সরবরাহ করছে, যা কোম্পানির দৈনিক মোট গ্যাস সরবরাহের (৪০০ এমএমসিএফডি) প্রায় ৭৫%।

সভায় বক্তারা আরো বলেন- অর্থনীতি এবং আধুনিক সভ্যতার মূল চালিকাশক্তি হচ্ছে জ্বালানি এবং আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশে সহজলভ্য জ্বালানি হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাসের বিকল্প নেই। তাই আমাদের বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য জ্বালানি নিরাপত্তার স্বার্থে প্রাকৃতিক গ্যাসের অবৈধ ব্যবহার ও অপচয় রোধে সকলকে সচেতন হতে হবে। জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবসটিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য প্রতি বছরের মত এবারও কোম্পানির প্রধান অফিসসহ সকল আঞ্চলিক বিতরণ কার্যালয় ও সিলেট শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ব্যানার ও ফেস্টুন স্থাপন/প্রদর্শন এবং জনগণের মধ্যে গ্যাস ব্যবহার সম্পর্কিত সতর্কতা ও সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।



সংবাদটি 26 বার পঠিত :::: সংবাদটি ভাল লাগলে লাইক বাটনে ক্লিক করুন
0Shares
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ